শেয়ার
 
Comments
প্রধানমন্ত্রী ৩ হাজার ৬৫০ কোটি টাকার একগুচ্ছ উন্নয়নমূলক প্রকল্পের উদ্বোধন ও শিলান্যাস করবেন
প্রধানমন্ত্রী বিলাসপুরে এইমস্ – এর উদ্বোধন করবেন, এর শিলান্যাসও তিনিই করেছিলেন
প্রধানমন্ত্রী ১ হাজার ৬৯০ কোটি টাকার জাতীয় সড়ককে চার লেন করার একটি প্রকল্পের শিলান্যাস করবেন
এই প্রকল্প সংশ্লিষ্ট অঞ্চলের শিল্প ও পর্যটনের বিকাশ ঘটাবে
প্রধানমন্ত্রী নালাগড়ে চিকিৎসা সরঞ্জাম নির্মাণ পার্কের শিলান্যাস করবেন এবং বান্দলায় জলবিদ্যুৎ বিষয়ক সরকারি ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ উদ্বোধন করবেন
প্রধানমন্ত্রী কুলু’তে দশেরা উদযাপনে অংশ নেবেন

প্রধানমন্ত্রী শ্রী নরেন্দ্র মোদী ৫ অক্টোবর হিমাচল প্রদেশ সফর করবেন। সফরকালে তিনি ৩ হাজার ৬৫০ কোটি টাকার একগুচ্ছ প্রকল্পের উদ্বোধন ও শিলান্যাস করবেন। শ্রী মোদী সকাল ১১টা ৩০ মিনিটে বিলাসপুরে এইমস্ – এর উদ্বোধন করবেন। এরপর, তিনি স্থানীয় লুহনু ময়দানে যাবেন। সেখানে ১২টা ৪৫ মিনিটে একগুচ্ছ প্রকল্পের উদ্বোধন ও শিলান্যাস করবেন এবং জনসভায় ভাষণ দেবেন। এরপর, প্রধানমন্ত্রী কুলুর ঢালপুর ময়দানে বিকেল ৩টে ১৫ মিনিটে যাবেন। সেখানে তিনি দশেরা উদযাপন অনুষ্ঠানে অংশ নেবেন। 

বিলাসপুরে এইমস্:

দেশ জুড়ে স্বাস্থ্য পরিষেবাকে আরও শক্তিশালী করে তোলার জন্য প্রধানমন্ত্রীর অঙ্গীকার বিলাসপুরে এইমস্‌ উদ্বোধনের মধ্য দিয়ে প্রতিফলিত হবে। তিনি ২০১৭ সালের অক্টোবর মাসে এই হাসপাতালের শিলান্যাস করেছিলেন। প্রধানমন্ত্রী স্বাস্থ্য সুরক্ষা যোজনার আওতায় এই হাসপাতাল নির্মিত হয়েছে।  

বিলাসপুরে ১ হাজার ৪৭০ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত অত্যাধুনিক এইমস্‌ হাসপাতালটিতে ১৮টি বিশেষ বিভাগ এবং ১৭ই সুপার স্পেশালিটি বিভাগ থাকবে। এছাড়াও, এখানে ১৮টি মডিউলার অপারেশন থিয়েটার, ৬৪টি আইসিইউ বেড সহ ৭৫০টি শয্যার ব্যবস্থা থাকছে। ২৪৭ একর জমির উপর নির্মিত এই হাসপাতালে দিনের যে কোনও সময়েই আপৎকালীন চিকিৎসার ব্যবস্থা এবং ডায়ালিসিসের সুবিধা থাকছে। এখানে আল্ট্রাসোনোগ্রাফি, সিটি স্ক্যান, এমআরআই সহ বিভিন্ন পরীক্ষা-নিরীক্ষা করার অত্যাধুনিক ব্যবস্থা থাকছে। হাসপাতালটিতে অমৃত ফার্মেসি, জন ঔষধি কেন্দ্র এবং ৩০ শয্যাবিশিষ্ট আয়ুষ চিকিৎসার ব্লক থাকছে। হিমাচল প্রদেশের দুর্গম জনজাতি অধ্যুষিত অঞ্চলে চিকিৎসা পরিষেবা পৌঁছে দিতে একটি ডিজিটাল স্বাস্থ্য কেন্দ্র গড়ে তোলা হয়েছে। এর সাহায্যে কাজা, সালুনি এবং কেলং – এর মতো দুর্গম পার্বত্য অঞ্চলে স্বাস্থ্য শিবিরের ব্যবস্থা করা হবে। প্রতি বছর এখানে এমবিবিএস পাঠক্রমে ১০০ জন এবং নার্সিং কোর্সে ৬০ জন ভর্তি হবেন। 

উন্নয়নমূলক প্রকল্প:

প্রধানমন্ত্রী ১০৫ নম্বর জাতীয় সড়কের পিঞ্জর থেকে নালাগড় পর্যন্ত ৩১ কিলোমিটার দীর্ঘ পথ চার লেনে উন্নীত করার প্রকল্পটির শিলান্যাস করবেন। এর জন্য ব্যয় হবে ১ হাজার ৬৯০ কোটি টাকা। এর ফলে আম্বালা, চন্ডীগড়, পাঁচকুলা এবং সোলান/সিমলা থেকে বিলাসপুর, মান্ডি ও মানালির মধ্যে যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নতি হবে। এই প্রকল্পের ১৮ কিলোমিটার হিমাচল প্রদেশে এবং বাকি অংশ হরিয়ানায়। প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হলে হিমাচল প্রদেশের নালাগড় – বাড্ডি শিল্পাঞ্চলে পরিবহণ ব্যবস্থা উন্নত হবে। সংশ্লিষ্ট অঞ্চলের শিল্প ও পর্যটনের সুবিধা হবে। 

শ্রী মোদী নালাগড়ে চিকিৎসার সরঞ্জাম তৈরির একটি পার্কের উদ্বোধন করবেন। এই প্রকল্পে ব্যয় হবে ৩৫০ কোটি টাকা। ইতোমধ্যেই প্রস্তাবিত এই পার্কে শিল্প গড়ার জন্য ৮০০ কোটি টাকার সমঝোতাপত্র স্বাক্ষরিত হয়েছে। এর ফলে, এই অঞ্চলে নতুন নতুন কর্মসংস্থান সৃষ্টি হবে। 

প্রধানমন্ত্রী বান্দলায় জলবিদ্যুৎ বিষয়ক সরকারি ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজের উদ্বোধন করবেন। এর ফলে, জলবিদ্যুৎ ক্ষেত্রে দক্ষ মানবসম্পদ এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে পাওয়া যাবে। 

কুলুতে দশেরা উৎসব:

কুলুর ঢালপুর ময়দানে ৫ – ১১ অক্টোবর আন্তর্জাতিক কুলু দশেরা উৎসব উদযাপিত হবে। উপত্যকার ৩০০-রও বেশি দেবদেবীর আরাধনা এই অনুষ্ঠানের বিশেষ বৈশিষ্ট্য। উৎসবের প্রথম দিনে ভগবান রঘুনাথজীর মন্দিরে দেবতারা পাল্কি করে এসে তাঁদের শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। এরপর, তাঁরা যান ঢালপুর ময়দানে। প্রধানমন্ত্রী এই পবিত্র রথযাত্রা প্রত্যক্ষ করবেন এবং কুলুতে ঐতিহাসিক দশেরা উৎসবে যোগ দেবেন। এই প্রথম কোনও প্রধানমন্ত্রী কুলুতে দশেরা উৎসবে অংশগ্রহণ করতে চলেছেন। 

 

Explore More
৭৬তম স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে লালকেল্লার প্রাকার থেকে প্রধানমন্ত্রী শ্রী নরেন্দ্র মোদীর জাতির উদ্দেশে ভাষণের বঙ্গানুবাদ

জনপ্রিয় ভাষণ

৭৬তম স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে লালকেল্লার প্রাকার থেকে প্রধানমন্ত্রী শ্রী নরেন্দ্র মোদীর জাতির উদ্দেশে ভাষণের বঙ্গানুবাদ
India ‘Shining’ Brightly, Shows ISRO Report: Did Modi Govt’s Power Schemes Add to the Glow?

Media Coverage

India ‘Shining’ Brightly, Shows ISRO Report: Did Modi Govt’s Power Schemes Add to the Glow?
...

Nm on the go

Always be the first to hear from the PM. Get the App Now!
...
PM Modi's remarks ahead of Budget Session of Parliament
January 31, 2023
শেয়ার
 
Comments
BJP-led NDA government has always focused on only one objective of 'India First, Citizen First': PM Modi
Moment of pride for the entire country that the Budget Session would start with the address of President Murmu, who belongs to tribal community: PM Modi

नमस्‍कार साथियों।

2023 का वर्ष आज बजट सत्र का प्रारंभ हो रहा है और प्रारंभ में ही अर्थ जगत के जिनकी आवाज को मान्‍यता होती है वैसी आवाज चारों तरफ से सकारात्‍मक संदेश लेकर के आ रही है, आशा की किरण लेकर के आ रही है, उमंग का आगाज लेकर के आ रही है। आज एक महत्‍वपूर्ण अवसर है। भारत के वर्तमान राष्‍ट्रपति जी की आज पहली ही संयुक्‍त सदन को वो संबोधित करने जा रही है। राष्‍ट्रपति जी का भाषण भारत के संविधान का गौरव है, भारत की संसदीय प्रणाली का गौरव है और विशेष रूप से आज नारी सम्‍मान का भी अवसर है और दूर-सुदूर जंगलों में जीवन बसर करने वाले हमारे देश के महान आदिवासी परंपरा के सम्‍मान का भी अवसर है। न सिर्फ सांसदों को लेकिन आज पूरे देश के लिए गौरव का पल है की भारत के वर्तमान राष्‍ट्रपति जी का आज पहला उदृबोधन हो रहा है। और हमारे संसदीय कार्य में छह सात दशक से जो परंपराऐं विकसित हुई है उन परंपराओं में देखा गया है कि अगर कोई भी नया सांसद जो पहली बार सदन में बोलने के लिए में खड़ा होता है तो किसी भी दल का क्‍यों न हो जो वो पहली बार बोलता है तो पूरा सदन उनको सम्‍मानित करता है, उनका आत्‍मविश्‍वास बढ़े उस प्रकार से एक सहानूकूल वातावरण तैयार करता है। एक उज्‍जवल और उत्‍तम परंपरा है। आज राष्‍ट्रपति जी का उदृबोधन भी पहला उदृबोधन है सभी सांसदों की तरफ से उमंग, उत्‍साह और ऊर्जा से भरा हुआ आज का ये पल हो ये हम सबका दायित्‍व है। मुझे विश्‍वास है हम सभी सांसद इस कसौटी पर खरे उतरेंगे। हमारे देश की वित्त मंत्री भी महिला है वे कल और एक बजट लेकर के देश के सामने आ रही है। आज की वैश्‍विक परिस्‍थिति में भारत के बजट की तरफ न सिर्फ भारत का लेकिन पूरे विश्‍व का ध्‍यान है। डामाडोल विश्‍व की आर्थिक परिस्‍थिति में भारत का बजट भारत के सामान्‍य मानवी की आशा-आकाक्षों को तो पूरा करने का प्रयास करेगा ही लेकिन विश्‍व जो आशा की किरण देख रहा है उसे वो और अधिक प्रकाशमान नजर आए। मुझे पूरा भरोसा है निर्मला जी इन अपेक्षाओं को पूर्ण करने के लिए भरपूर प्रयास करेगी। भारतीय जनता पार्टी के नेतृत्‍व में एनडीए सरकार उसका एक ही मकसद रहा है, एक ही मोटो रहा है, एक ही लक्ष्‍य रहा है और हमारी कार्य संस्‍कृति के केंद्र बिंदु में भी एक ही विचार रहा है ‘India First Citizen First’ सबसे पहले देश, सबसे पहले देशवासी। उसी भावना को आगे बढाते हुए ये बजट सत्र में भी तकरार भी रहेगी लेकिन तकरीर भी तो होनी चाहिए और मुझे विश्‍वास है कि हमारे विपक्ष के सभी साथी बड़ी तैयारी के साथ बहुत बारीकी से अध्‍ययन करके सदन में अपनी बात रखेंगे। सदन देश के नीति-निर्धारण में बहुत ही अच्‍छी तरह से चर्चा करके अमृत निकालेगा जो देश का काम आएगा। मैं फिर एक बार आप सबका स्‍वागत करता हूं।

बहुत-बहुत शुभकामनाएं देता हूं। धन्‍यवाद।