শেয়ার
 
Comments
সচিবদের একটি নির্দিষ্ট লক্ষ্য থাকে, যা দেশকে এগিয়ে নিয়ে যেতে ও আরও বেশি শক্তিশালী করতে সাহায্য করে: প্রধানমন্ত্রী
সাধারণ মানুষের বহু প্রত্যাশা রয়েছে। সেই প্রত্যাশাগুলি বাস্তব রূপ দিয়ে জীবনযাত্রার মানোন্নয়ন করা প্রয়োজন: প্রধানমন্ত্রী
আগামী পাঁচ বছরে প্রত্যেক মন্ত্রককে একটি করে পরিকল্পনা তৈরি করতে হবে, যা লক্ষ্য পূরণ ও মাইলফলক সৃষ্টি করতে পারে: প্রধানমন্ত্রী

 

প্রধানমন্ত্রী শ্রী নরেন্দ্র মোদী আজ নতুন দিল্লিতে লোককল্যাণ মার্গে সমস্ত কেন্দ্রীয় সরকারের সব সচিবদের সঙ্গে বৈঠক করেন। বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন – কেন্দ্রীয় মন্ত্রী শ্রী রাজনাথ সিং, শ্রী অমিত শাহ্‌, শ্রীমতী নির্মলা সীতারমন এবং ডঃ জিতেন্দ্র সিং। ক্যাবিনেট সচিব শ্রী পি কে সিনহা বৈঠকে জানান যে, বিগত সরকারের সময়কালে প্রধানমন্ত্রী কিভাবে সরাসরি নির্দেশক এবং সহ-সচিবদের সঙ্গে যোগাযোগ রেখে চলতেন। ক্যাবিনেট সচিব সমস্ত সচিবদের সামনে দুটি গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্বের কথা তুলে ধরেন। 

তিনি বলেন, আগামী পাঁচ বছরে প্রত্যেক মন্ত্রককে একটি করে পরিকল্পনা তৈরি করতে হবে, যা লক্ষ্য পূরণ ও মাইলফলক সৃষ্টি করতে পারে। প্রত্যেক মন্ত্রককে এমন কার্যকরি সিদ্ধান্ত নিতে হবে, যা ১০০ দিনের মধ্যেই অনুমোদিত হয়।

বৈঠকে বিভিন্ন দপ্তরের সচিবরা প্রশাসনিক কার্যকরি সিদ্ধান্ত গ্রহণ, কৃষি, গ্রামোন্নয়ন, পঞ্চায়েতি রাজ, তথ্য প্রযুক্তি ক্ষেত্র, শিক্ষা, স্বাস্থ্য, বাণিজ্য, আর্থিক অগ্রগতি, দক্ষতা উন্নয়ন প্রভৃতি ক্ষেত্রে তাঁদের চিন্তভাবনা ও মতামত বিনিময় করেন।

অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী স্মরণ করেন যে, ২০১৪ সালের জুন মাসে প্রথমবার প্রত্যেক সচিবদের সঙ্গে বৈঠক করেছিলেন। তিনি বলেন, সমস্ত আধিকারিকদের কঠিন পরিশ্রম এবং গত পাঁচ বছরে সরকারের নেওয়া কর্মসূচিগুলির বাস্তব রূপ দেওয়ার ফলেই সম্প্রতি সাধারণ নির্বাচনে বিপুল সাফল্য এসেছে। প্রধানমন্ত্রী বলেন, এবারের নির্বাচনে সাধারণ মানুষ প্রত্যেক দিনের অভিজ্ঞতা ও বিশ্বাস থেকেই তাঁদের পক্ষে মতপ্রকাশ করেছেন। তিনি বলেন, আগামী পাঁচ বছরে জনগণের জন্যই পরিকল্পনা করা দরকার এবং সেটিকেই প্রধান্য দেওয়া হচ্ছে। সাধারণ মানুষের বহু প্রত্যাশা রয়েছে।

সেই প্রত্যাশাগুলি বাস্তব রূপ দিয়ে জীবনযাত্রার মানোন্নয়ন করা প্রয়োজন। ভৌগোলিক দিক থেকে বিভিন্ন জায়গায় বিভিন্ন মানুষ বসবাস করলেও একতাই হ’ল তাঁদের লক্ষ্য। প্রত্যেকটি কেন্দ্রীয় সরকারি দপ্তর এবং প্রত্যেক রাজ্যের প্রত্যেক জেলায় আগামী দিনে ভারতে ৫ ট্রিলিয়ন অর্থনীতি গঠন করতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নেবে বলেও তিনি জানান। প্রধানমন্ত্রী ‘মেক ইন ইন্ডিয়া’র গুরুত্বের কথা তুলে ধরেন এবং আগামী দিনেও এটিকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার কথাও বলেন। তিনি বলেন, ভারত ‘সহজে ব্যবসার নীতি’তে অনেকটাই এগিয়েছে এবং এর বড় সাফল্য এসেছে ছোট ব্যবসা ও শিল্পোদ্যোগ ক্ষেত্রে। 

জল, মৎস্যচাষ ও পশুপালনের ক্ষেত্রে সরকার বিশেষ গুরুত্ব দিচ্ছে বলেও জানান তিনি। প্রধানমন্ত্রী বৈঠকে বলেন, সচিবদের একটি নির্দিষ্ট লক্ষ্য থাকে, যা দেশকে এগিয়ে নিয়ে যেতে ও আরও বেশি শক্তিশালী করতে সাহায্য করে। সচিবদের এই টিম নিয়ে প্রধানমন্ত্রী গর্ব প্রকাশ করে প্রযুক্তির মাধ্যমে প্রত্যেক দপ্তরের মানোন্নয় ঘটানোর আহ্বান জানান।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, স্বাধীনতার ৭৫ বছর পূর্তিতে প্রত্যেক দপ্তরকে কার্যকরি ভূমিকা নেওয়া প্রয়োজন। দেশের উন্নয়ন ও সাধারণ মানুষের প্রত্যাশা পূরণের লক্ষ্যে শেষ প্রান্ত পর্যন্ত প্রশাসনকে কাজ করার নির্দেশ দেন প্রধানমন্ত্রী শ্রী নরেন্দ্র মোদী।

ডোনেশন
Explore More
আমাদের ‘চলতা হ্যায়’ মানসিকতা ছেড়ে ‘বদল সাকতা হ্যায়’ চিন্তায় উদ্বুদ্ধ হতে হবে: প্রধানমন্ত্রী

জনপ্রিয় ভাষণ

আমাদের ‘চলতা হ্যায়’ মানসিকতা ছেড়ে ‘বদল সাকতা হ্যায়’ চিন্তায় উদ্বুদ্ধ হতে হবে: প্রধানমন্ত্রী
Overjoyed by unanimous passage of Bill extending reservation for SCs, STs in legislatures: PM Modi

Media Coverage

Overjoyed by unanimous passage of Bill extending reservation for SCs, STs in legislatures: PM Modi
...

Nm on the go

Always be the first to hear from the PM. Get the App Now!
...
Citizenship (Amendment) Bill will alleviate the suffering of many who faced persecution for years: PM
December 11, 2019
শেয়ার
 
Comments

Expressing happiness over passage of the Citizenship (Amendment) Bill, PM Narendra Modi said the Bill will alleviate the suffering of many who faced persecution for years.

Taking to Twitter, the PM said, "A landmark day for India and our nation’s ethos of compassion and brotherhood! Glad that the Citizenship (Amendment) Bill 2019 has been passed in the Rajya Sabha. Gratitude to all the MPs who voted in favour of the Bill."