শেয়ার
 
Comments

গুরু নানক দেবজীর আদর্শ ও মূল্যবোধের উপদেশগুলি আরও বেশি করে তুলে ধরার আহ্বান জানালেন প্রধানমন্ত্রী শ্রী নরেন্দ্র মোদী। সুসংহত চেকপোস্ট এবং করতারপুর করিডরের উদ্বোধন উপলক্ষে ডেরা বাবা নানক – এ আয়োজিত এক বিশেষ অনুষ্ঠানে তিনি যোগ দেন। গুরু নানক দেবজীর ৫৫০তম আবির্ভাব-তিথি উদযাপন উপলক্ষে শ্রী মোদী একটি স্মারক মুদ্রারও আনুষ্ঠানিক প্রকাশ করেন।

এক বিশাল জনসমাবেশে প্রধানমন্ত্রী বলেন, পবিত্র ডেরা বাবা নানক – এ এসে করতারপুর করিডর জাতির উদ্দেশে উৎসর্গ করে তিনি নিজে গর্বিত বোধ করছেন।

এর আগে শিরোমণি গুরুদ্বার প্রবন্ধক কমিটি প্রধানমন্ত্রীকে কোয়ামি সেবা পুরস্কার প্রদান করে সংবর্ধনা জানায়। প্রধানমন্ত্রী বলেন, তিনি এই পুরস্কার গুরু নানক দেবজীর পাদপদ্মকমলে নিবেদন করেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ৫৫০তম গুরু নানক জয়ন্তী উদযাপন উপলক্ষে সুসংবদ্ধ চেকপোস্ট ও করতারপুর করিডরের উদ্বোধন তাঁর কাছে পরম আশীর্বাদ। চেকপোস্ট ও করতারপুর করিডরের সূচনার ফলে পুণ্যার্থীদের পাকিস্তানে গুরুদ্বার দরবার সাহিবে যাতায়াতে সুবিধা হবে।

শিরোমণি গুরুদ্বার প্রবন্ধক কমিটি, পাঞ্জাব সরকার সহ রেকর্ড সময়ে যারা এই করিডর নির্মাণের কাজ শেষ করতে অবদান রেখেছে, তাদের কৃতজ্ঞতা জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, এর ফলে সীমান্ত পেরিয়ে পুণ্যার্থীদের যাতায়াত আরও সুগম হবে। এই করিডর নির্মাণের কাজ নির্ধারিত সময়ের মধ্যে শেষ হওয়ায় পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান ও অন্যান্যদের প্রতি শ্রী মোদী কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

গুরু নানক দেবজীকে কেবল ভারতেই নয়, সমগ্র বিশ্বের কাছে অনুপ্রেরণা-দায়ক বলে বর্ণনা করে শ্রী মোদী বলেন, গুরু নানক দেবজী একজন আদর্শ ধর্মগুরুই ছিলেন না, বরং তিনি ছিলেন আমাদের দৈনন্দিন জীবনে এক স্তম্ভ-স্বরূপ। গুরু নানকজী প্রকৃত মূল্যবোধ অনুসরণ করে বেঁচে থাকার গুরুত্ব সম্পর্কে আমাদের দিশা দেখিয়েছিলেন। একই সঙ্গে সততা ও আত্মবিশ্বাসের ওপর ভিত্তি করে তিনি এক সুদৃঢ় অর্থনৈতিক ব্যবস্থার রূপরেখা দিয়েছিলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, গুরু নানক দেবজী সমাজে সমতা, সৌভ্রাতৃত্ব এবং একতার প্রকৃত শিক্ষা দিয়েছিলেন। সামাজিক কুসংস্কারগুলি দূরীকরণেও তিনি আমাদের লড়াইয়ের পথ দেখিয়েছিলেন।

করতারপুরকে গুরু নানক দেবজীর স্বর্গীয় অনুভূতিতে ভরা এক পবিত্র স্থান হিসাবে বর্ণনা করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, এই করিডর লক্ষ লক্ষ পুণ্যার্থী ও অনুগামীদের জন্য ওত্যন্ত সহায়ক হবে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, বিগত পাঁচ বছর ধরে তাঁর সরকার দেশের সমৃদ্ধ ঐতিহ্য ও সংস্কৃতির স্বার্থে কাজ করে চলেছে। গুরু নানক দেবজীর ৫৫০তম আবির্ভাব-তিথি উপলক্ষে দেশে এবং বিদেশে ভারতীয় দূতাবাসগুলিতে একাধিক কর্মসূচির আয়োজন করা হয়েছে।

গুরু গোবিন্দ সিংজীর ৩৫০তম জন্মবার্ষিকী সারা দেশ জুড়ে উদযাপিত হয়েছে উল্লেখ করে শ্রী মোদী বলেন, গুরু গোবিন্দ সিংজীর স্মৃতিতে গুজরাটের জামনগরে ৭৫০টি শয্যাবিশিষ্ট আধুনিক হাসপাতাল গড়ে তোলা হয়েছে।

রাষ্ট্রসংঘের প্রতিষ্ঠান ইউনেস্কোর সহায়তায় তরুণ প্রজন্মকে উৎসাহিত করতে বিশ্বের একাধিক ভাষায় ‘গুরু বাণী’র অনুবাদ করা হচ্ছে জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী জানান, সুলতানপুর লোধি শহরকে ঐতিহ্যবাহী শহর হিসাবে গড়ে তোলা হচ্ছে এবং গুরু নানকজীর স্মৃতি বিজড়িত স্থানগুলিকে যুক্ত করে একটি বিশেষ ট্রেন পরিষেবার সূচনা হয়েছে। গুরু নানকজীর স্মৃতি বিজড়িত একাধিক স্থান, যেমন – শ্রী অকাল তখ, ডাম ডামা সাহিব, তেজপুর সাহিব, কেশগড় সাহিব, পাটনা সাহিব এবং হুজুর সাহিবের সঙ্গে ট্রেন ও বিমান যোগাযোগ ব্যবস্থা বাড়ানো হচ্ছে। অমৃতসর ও নামবেদের মধ্যে বিশেষ বিমান পরিষেবার সূচনা হয়েছে বলেও তিনি জানান। অমৃতসর থেকে লন্ডনগামী এয়ার ইন্ডিয়ার বিমানে ‘এক ওমকার’ বাণী প্রদর্শিত হচ্ছে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, তাঁর সরকার এমন অনেক গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নিয়েছে, যার ফলে বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে বসবাসকারী শিখ পরিবারগুলি উপকৃত হয়েছেন। বিদেশে বসবাসকারী শিখ পরিবারগুলি ভারতে আসার সময় বিগত বছরগুলিতে যে সমস্ত সমস্যার সম্মুখীন হয়েছে, তা আজ দূর করা হয়েছে। এখন প্রবাসী শিখ পরিবারগুলি ভিসা ও অনাবাসী ভারতীয় কার্ডের জন্য আবেদন করতে পারেন। এর ফলে, অনাবাসী শিখ পরিবারগুলি সহজেই ভারতে এসে তাঁদের আত্মীয়-স্বজনদের সঙ্গে দেখা করতে এবং পবিত্র স্থানগুলিতে ভ্রমণ করতে পারবেন।

তিনি আরও বলেন, সরকারের আরও দুটি সিদ্ধান্তের ফলে শিখ সম্প্রদায়ের মানুষ উপকৃত হয়েছেন। এর একটি হ’ল – সংবিধানের ৩৭০ অনুচ্ছেদ বাতিল। সরকারের এই সিদ্ধান্তে জম্মু ও কাশ্মীর তথা লাদাখে বসবাসকারী শিখ সম্প্রদায়ের মানুষেরা দেশের বাকি অংশের সাধারণ মানুষের মতো সমানাধিকার পাবেন। দ্বিতীয়টি হ’ল – নাগরিকত্ব সংশোধন বিলের ফলে শিখরা এখন থেকে ভারতের নাগরিক হওয়ার সুযোগ পাবেন।

গুরু নানক দেবজী থেকে গুরু গোবিন্দজী সহ বহু আধ্যাত্মিক গুরু ভারতের একতা ও নিরাপত্তা অটুট রাখতে নিজেদের জীবন উৎসর্গ করেছেন বলে মন্তব্য করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, বহু শিখ ভারতের স্বাধীনতার জন্য প্রাণ দিয়েছেন। শিখ সম্প্রদায়ের মানুষের অবদানের স্বীকৃতি-স্বরূপ কেন্দ্রীয় সরকার একাধিক পদক্ষেপ নিয়েছে। তিনি জানান, জালিয়ানওয়ালাবাগ সৌধের সংস্কার করা হচ্ছে। এখন গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে, শিখ ছাত্রছাত্রীদের কর্মমুখী দক্ষতা বৃদ্ধি ও স্বনিযুক্তির ওপর। প্রায় ২৭ লক্ষ শিখ ছাত্রছাত্রীকে বৃত্তি দেওয়া হয়েছে বলে প্রধানমন্ত্রী উল্লেখ করেন।

Click here to read full text speech

২০ বছরের সেবা ও সমর্পণের ২০টি ছবি
Mann KI Baat Quiz
Explore More
আমাদের ‘চলতা হ্যায়’ মানসিকতা ছেড়ে ‘বদল সাকতা হ্যায়’ চিন্তায় উদ্বুদ্ধ হতে হবে: প্রধানমন্ত্রী

জনপ্রিয় ভাষণ

আমাদের ‘চলতা হ্যায়’ মানসিকতা ছেড়ে ‘বদল সাকতা হ্যায়’ চিন্তায় উদ্বুদ্ধ হতে হবে: প্রধানমন্ত্রী
Business optimism in India at near 8-year high: Report

Media Coverage

Business optimism in India at near 8-year high: Report
...

Nm on the go

Always be the first to hear from the PM. Get the App Now!
...
সোশ্যাল মিডিয়া কর্নার 29 নভেম্বর 2021
November 29, 2021
শেয়ার
 
Comments

As the Indian economy recovers at a fast pace, Citizens appreciate the economic decisions taken by the Govt.

India is achieving greater heights under the leadership of Modi Govt.