শেয়ার
 
Comments

৩০ সে অগাস্ট ২০১৬-তে গুজরাতের জামনগরের একটি বাঁধ থেকে জল ছাড়ার সূচনা অনুষ্ঠানে শ্রী নরেন্দ্র মোদীর সতর্ক দৃষ্টি বেশ কয়েকজন সাংবাদিক এবং চিত্র-সাংবাদিকের প্রাণ বাঁচিয়েছিলো।

গুজরাতের দুর্লভ সৌরাষ্ট্র অঞ্চলের জলের সমস্যা দূর করার জন্য সাউনি যোজনার সূচনা অনুষ্ঠান চলছিলো।

বাঁধের জল ছাড়ার জন্য সুইচ টিপে মুখ্যমন্ত্রী বিজয় রূপানি সহ প্রধানমন্ত্রী এবং শাসকগোষ্ঠী জলস্রোতের দিকে তাকান। সে সময় শ্রী মোদী দেখেন, তীব্র বেগে ছুটে আসা জলস্রোতের গতিপথে দাঁড়িয়ে রয়েছেন কিছু সাংবাদিক। জল যে দিকে আসছে সেদিকে ভ্রুক্ষেপ নেই কাজে ব্যস্ত সাংবাদিকদের। তখন মোদীই প্রথম বাঁহাত তুলে দাঁড়িয়ে থাকা সাংবাদিকদের সরে যেতে বলেন। সঠিক সময়ে সতর্কবার্তা দিয়ে মূল্যবান জীবন রক্ষা করেছিলেন।

একজন চিত্র-সাংবাদিক সংবাদ সংস্থার সঙ্গে কথা বলার সময় বললেন যে, প্রধানমন্ত্রী তাঁকে একটি নতুন জীবন দিয়েছেন

শ্রী মোদীর এই শ্রী সতর্কতার জন্য বারবার প্রশংসিত করা হয়েছিল।

৫ এপ্রিল ২০১৫-তে যখন প্রধানমন্ত্রী প্রধান বিচারপতি ও মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে বিজ্ঞান ভৱনে একটি সম্মেলনে যোগ দিযেছিলেন তখন একজন চিত্র-সাংবাদিক নিচে পড়ে গিয়েছিলেন। সেই ব্যক্তিকে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিতে শ্রী নরেন্দ্র মোদীর ছাড়া অন্য কেউ ছিল না। এমনকি এই গপ্প ব্যাপকভাবে জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে।

Explore More
৭৬তম স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে লালকেল্লার প্রাকার থেকে প্রধানমন্ত্রী শ্রী নরেন্দ্র মোদীর জাতির উদ্দেশে ভাষণের বঙ্গানুবাদ

জনপ্রিয় ভাষণ

৭৬তম স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে লালকেল্লার প্রাকার থেকে প্রধানমন্ত্রী শ্রী নরেন্দ্র মোদীর জাতির উদ্দেশে ভাষণের বঙ্গানুবাদ
Innovating Like Never Before’: India Climbs to 40th Spot in Global Innovation Index

Media Coverage

Innovating Like Never Before’: India Climbs to 40th Spot in Global Innovation Index
...

Nm on the go

Always be the first to hear from the PM. Get the App Now!
...
স্টার্ট-আপ প্রধানমন্ত্রী
September 07, 2022
শেয়ার
 
Comments

যাঁরা প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে দেখা করার এবং মতবিনিময় করার সুযোগ পেয়েছেন, তাঁরা সবাই তাঁকে একজন অনুপ্রেরণাদায়ক নেতা এবং একজন কীন লিসেনার হিসাবে অভিহিত করেছেন। ওয়ো-র প্রতিষ্ঠাতা রিতেশ আগরওয়ালের ক্ষেত্রেও ভিন্ন কিছু নেই। রিতেশ প্রধানমন্ত্রী মোদীর সঙ্গে ভ্রমণ ও পর্যটন শিল্প নিয়ে আলোচনার সুযোগ পেয়েছিলেন। প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে তাঁর মতবিনিময় তাঁকে একটি সম্পূর্ণ নতুন বিজনেস মডেল তৈরি করতে সাহায্য করেছিল।

একটি ভিডিওতে, রিতেশ প্রধানমন্ত্রী মোদীকে এমন একজন ব্যাক্তি হিসাবে বর্ণনা করেছেন যার কেবলমাত্র ম্যাক্রো স্তরে খুব গভীর মনোযোগ দেওয়ার ক্ষমতা নেই, বরং এমন একজন ব্যাক্তি যিনি গ্রাউন্ড লেভেলে প্রভাব ফেলে এমন বিষয়গুলি নিয়ে আলোচনা করতে পারেন। 

তিনি প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া একটি উদাহরণ শেয়ার করেছেন। প্রধানমন্ত্রী মোদীকে উদ্ধৃত করে রিতেশ বলেন, “ভারত একটি কৃষিনির্ভর অর্থনীতি। আমাদের দেশে অনেক কৃষক আছে। তাদের আয় মাঝে মাঝে পরিবর্তিত হতে পারে। অন্যদিকে, এমন মানুষ আছে যারা গ্রামে যেতে চায়, বাসস্থান খুঁজতে চায় এবং এর বাইরে একটি অভিজ্ঞতা আছে। কেন আপনি গ্রাম পর্যটনের চেষ্টা করেন না যাতে এই কৃষকদের মধ্যে কিছু কৃষককে দীর্ঘমেয়াদী আয়ের একটি উৎস এবং শহুরে বাসিন্দারা দেখতে সক্ষম হয় যে সত্যিকারের একটি গ্রামের জীবন কী? 

রীতেশ শেয়ার করেছেন কীভাবে গ্রামীণ পর্যটন সম্পর্কে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কয়েক মিনিটের মতবিনিময় একটি সুযোগে রূপান্তরিত হয়েছে, যার ফলে অনেক কৃষক এবং গ্রামীণ পরিবার নিরন্তর উপার্জন করতে উপকৃত হয়েছেন। রীতেশ উল্লেখ করেছেন যে, প্রধানমন্ত্রীর একটি বিষয় সম্পর্কে ব্যাপক গভীরতার পাশাপাশি প্রশস্ততার ক্ষমতাই প্রধানমন্ত্রী মোদীকে একজন ‘স্টার্ট আপ প্রধানমন্ত্রী’ করে তুলেছে। 

রিতেশ আরও বলেছেন যে, কেবল ভ্রমণ এবং পর্যটন নয়, যে কোনও শিল্পের সাথে সম্পর্কিত বিষয়গুলি নিয়ে আলোচনা করার মতো ক্ষমতা এবং গভীরতা প্রধানমন্ত্রী মোদীর রয়েছে। “আমি তাঁকে ডেটা সেন্টারের সম্প্রসারণ নিয়ে আলোচনা করতে দেখেছি, কীভাবে আমরা সৌর থেকে ইথানল পর্যন্ত পুনর্নবীকরণযোগ্য শক্তিতে ভাল কাজ করতে পারি, এখানে ভারতে প্যানেল তৈরি করার জন্য কী কাঁচামাল প্রয়োজন, এটি কীভাবে একটি কোম্পানিকে উপকৃত করতে পারে। পিএলআই প্রকল্পে...যখনই আমরা পরিকাঠামো নিয়ে কথা বলি, আমরা নিজেদেরকে রাস্তা, রেলপথ এবং হাইওয়েতে সীমাবদ্ধ রাখি, কিন্তু যখনই আমরা শিল্প প্রতিনিধি দলের অংশ হিসাবে তার সঙ্গে দেখা করি, আমি তাঁকে এমনকি কনজিউমার ইলেকট্রনিক্স নিয়েও আলোচনা করতে দেখেছি। ভারত, এই বছর ইলেকট্রনিক্স উত্পাদনের ক্ষেত্রে একটি বৃহত্তম দেশ হবে, যা খুব কমই মানুষ জানে। ভারত তার চারপাশে ড্রোন তৈরি এবং গবেষণা ও উদ্ভাবনের কেন্দ্রস্থল হয়ে উঠেছে... এই প্রতিটি শিল্পে, আমার দৃষ্টিতে এত গভীরতা অতুলনীয় এবং এটিই এই শিল্পগুলির দ্রুত বিকাশ ঘটাচ্ছে।

রিতেশ বলেন, প্রধানমন্ত্রী মোদী একজন "অবিশ্বাস্য শ্রোতা"। তিনি কেন্দ্রীয় বাজেটের আগে আয়োজিত একটি অনুষ্ঠানের একটি উদাহরণ বর্ণনা করেছিলেন। অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী মোদী যা বলেছিলেন তা তিনি স্মরণ করেন। আবারও প্রধানমন্ত্রীকে উদ্ধৃত করে তিনি বলেন, “যদি পর্যটনের প্রসার ঘটাতে হয়, তাহলে আমাদের বৃহৎ আকারের এবং দীর্ঘমেয়াদী পরিকাঠামো বিনিয়োগ করা উচিত যার মাধ্যমে শিল্প তার সুফল পেতে পারে।” রিতেশ আরও বলেন যে, গুজরাতের কেভাদিয়া এই চিন্তা-ভাবনারর একটি দুর্দান্ত উদাহরণ এবং কীভাবে স্ট্যাচু অফ ইউনিটির চারপাশে আকর্ষণ সেখানে একটি হোটেল শিল্পকে বিকাশে সহায়তা করেছে। "পরিকাঠামো সম্পর্কে প্রায় পাঁচ, দশ, পনেরো বছরের দূরদর্শী যা আমি দীর্ঘমেয়াদী সংস্কারবাদী এবং মূল্য সৃষ্টিকারী হিসাবে প্রধানমন্ত্রী মোদীকে আকর্ষণীয় বলে মনে করেছি", বলেছেন রিতেশ। 

রিতেশ আরও বলেন, প্রধানমন্ত্রী মোদীর মধ্যে একজন উদ্যোক্তার অনেক গুণ রয়েছে। তিনি বলেছেন, “প্রধানমন্ত্রী মোদী প্রভাবের দিক থেকে বড় চিন্তা করেন তবে এটি করার আগে তিনি এটি ছোট পরিসরে পরীক্ষা করেন। তাঁর ক্ষমতা হল বৃহৎ আকারের উদ্যোগগুলিকে দেখা এবং এর বাস্তবায়নকে খুব কাছ থেকে ট্র্যাক করা।” ওয়ো-র প্রতিষ্ঠাতা মন্তব্য করেছেন, “আমাদের দেশে এমন একজন নেতা আছেন যিনি বলছেন যে আমরা ক্রমবর্ধমান হয়ে সন্তুষ্ট নই। আমরা এমন একটি দেশ যেখানে বিশ্বের সেরা হওয়ার আকাঙ্খা এবং অনুপ্রেরণা সহ এক বিলিয়ন প্লাস মানুষ রয়েছে।”

ডিসক্লেইমার:

প্রধানমন্ত্রী শ্রী নরেন্দ্র মোদী এবং মানুষের জীবনে তার প্রভাব সম্পর্কে মানুষের উপাখ্যান/মতামত/বিশ্লেষণ বর্ণনা করে বা এমন গল্প সংগ্রহ করার প্রয়াসের অংশ।